পর্ব- ৯ঃ থিসিস পেপার যেভাবে পাবলিশ করবেন

পেপার পাবলিশ করা সম্পর্কে আসলে তেমন লেখার কিছু নাই। কেননা, কোন একটা কনফারেন্সে ​আপনি জাস্ট আপনার ম্যানুস্ক্রিপ্ট সাবমিট করলেই তারা একটার পর একটা মেইল দিয়ে সকল ইনস্ট্রাকশন জানিয়ে দিবে।

- কনফারেন্স খোজা

বিভিন্ন রিসার্স কমিউনিটি বা অন্য সোর্স থেকে কোনো একটি কনফারেন্স সম্পর্কে জানতে পারলে প্রথম কাজ হবে তাদের ওয়েবসাইট খুজে বের করা। কনফারেন্স খুজে পাওয়ার জন্য Guide2Research ওয়েবসাইটটাও বেশ কাজের মনে হয়েছে।

কনফারেন্স এবং তাদের ওয়েবসাইট খুজে পাওয়ার পরের কাজ হবে ঐ কনফারেন্স সম্পর্কে খুটিনাটি কিছু তথ্য বের করা। যেমন-

- কনফারেন্স সম্পর্কে জানা

  • তাদের এটি কততম আয়োজন, বেশি পুরাতন হলে কনফারেন্স ভেলু ভালো হওয়ার কথা

  • কনফারেন্সের পেপারগুলো কোথায় পাবলিশ হবে

  • স্কপাস ইনডেক্সড কিনা

    • www.scopus.com, লিংক থেকে দেখে নিতে পারেন।

  • কনফারেন্সের ডেট, টাইম এবং স্থান

  • কোন কোন ফিল্ডে তারা পেপার এক্সপেক্ট করছে

  • কনফারেন্স চেয়ারে কারা আছে, তাদের প্রোফাইল কেমন

- সাবমিশন ফরমেট সংগ্রহ

কনফারেন্সের ওয়েবসাইট থেকে খুজে দেখবেন তাদের দেয়া কোনো পেপার ফরমেট রয়েছে কিনা। খুজে না পেলে তারা যে পাবলিকেশনে তাদের পেপার পাবলিশ করলে লিখেছে তাদের অফিসিয়াল সাইট থেকেও নামিয়ে নিতে পারেন। হতে পারে সেটা লেটেক্স বা ওয়ার্ড ফরমেট। পেপার লেখার ক্ষেত্রে আমি সবসময়ই লেটেক্স ফরমেটে লিখতে বেশি পছন্দ করি। আমার কাছে ওয়ার্ড ফরমেট অনেক বেশি ঝামেলার মনে হয়।

- পেপার সাবমিশন

এসবকিছু দেখে পছন্দ হলে তাদের সাবমিশন প্রসিডিউর দেখতে পারেন। বেশিরভাগ কনফারেন্সগুলোতে EasyChair এর মাধ্যমে পেপার সাবমিট এবং আপডেট করতে হয়। অসাধারণ এই পোর্টালটিতে পেপার সাবমিশনের পরেও আপনি অনেক ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

তাদের দেয়া ফরমেট অনুযায়ী আপনার পেপার লেখা হয়ে গেলে তাদের প্রসিডিউর অনুযায়ী ম্যানুস্ক্রিপ্ট সাবমিট করে দিন। পরবর্তীতে কোনো আপডেট বা ইডিটের দরকার হলে মোটামুটি সব কনফারেন্সেই তা সুযোগ পাবেন, কিন্তু রিভিউ হয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত।

সাবমিট করা শেষ হলে তাদের সময় অনুযায়ী আপনাকে কিছুদিন পর মেইল করে একসেপ্ট্যান্স নোটিফিকেশন মেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দিবে।